চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১

প্রেমের সম্পর্ক ছিন্ন করাতে অপহরণের নাটক সাজালো মা

প্রকাশ: ২০১৭-১১-১৮ ০৪:৪১:২২ || আপডেট: ২০১৭-১১-১৮ ০৪:৪১:২২

সিটিজি নিউজ ডেস্ক :  নিজ কন্যার প্রেমের সম্পর্ক ছিন্ন করাতে অপহরণের নাটক সাজিয়ে অবশেষে ফেঁসে গেলেন মাসহ অপহরণ কারীরা।

মেয়ের প্রেমিককে সন্ত্রাসী দিয়ে অপহরণ করার ঘটনা ঘটেছে সন্দ্বীপে।
গতকাল শুক্রবার ভোরে পুলিশের অভিযানে অপহৃত জিহাদ (২২)সহ ২ অপহরণকারীকে আটক করা হয়েছে।জিহাদ পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড এর মুরাদের বাড়ীর প্রবাসী জসিমের পুত্র। সে সন্দ্বীপ সরকারি হাজী এবি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয়দের থেকে জানা যায়, পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ড এর নাছির হাজী বাড়ীর প্রবাসী নাছিরের স্ত্রী পারভীনের মেয়ে আয়না বেগমের সাথে প্রতিবেশী যুবক জিহাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে পারভীন আক্তার এতে বাধা দিয়ে গতকাল সন্ধ্যায় মেয়েকে মারধর করে।এতে পারভীনের মেয়ে বিভিন্ন ঘুমের ওষুধ খেয়ে অঞ্জান হয়ে গেলে তাকে এনাম নাহার মোড়ের একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়। এই ঘটনায় মেয়ের প্রেমিকের উপর প্রতিশোধ নিতে তার ছেলে পারভেজ ও প্রতিবেশী ডিপটিকে দিয়ে প্রেমিকার অসুস্থতার কথা জানিয়ে কৌশলে জিহাদকে তার গুপ্তছড়া বাজারের দোকান থেকে উঠিয়ে এনাম নাহার মোড়ে এনে পূর্বে যোগাযোগ করে রাখা ফয়সাল, রনি সহ অঞ্জাত ৭/৮ জন যুবকের হাতে তুলে দিলে তারা জিহাদকে মোটরসাইকেল করে সরকারি এবি কলেজের পাশে একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মারধর করে পরিবারের কাছে ২ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবী করে।

জিহাদের পরিবার বিষয়টি সন্দ্বীপ থানাকে অবহিত করলে পুলিশের পরামর্শে তারা ১৭ নভেম্বর শুক্রবার ভোরে টাকা নিয়ে অপহরণকারীদের কাছে আসলে পুলিশ তাদের ঘিরে ফেলে।এসময় অপহরণকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছুড়লে পুলিশ পাল্টা গুলি ছোড়ে।এতে উপায় না দেখে অপহরণকারীরা দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে।এসময় ফয়সাল একটি ডোবায় ঝাঁপিয়ে পড়লে পুলিশ তাকে সেখান থেকে এবং ফজলুল করিম রনিসহ ২ জনকে আটক করে।

এসময় তাদের কাছে থাকা একটি দেশী বন্দুক, ২টি ছুড়ি, ১টি মোটরসাইকেলের চেইন ও ৩৭পিস ইয়াবা সহ আটক করে।পরে ডিপটি ও পারভীনকে আটক করে।আটক ফয়সাল মুছাপুর ১নং ওয়ার্ড এর কামালের এবং ফজলুল করিম রনি আলাম বাড়ীর মোঃ আবুল খায়েরের ছেলে। এই ঘটনায় আলাদা ৩টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

জিহাদের দাদা মোঃ আহাদ বাদী হয়ে ডিপটি ও পারভীন আক্তার সহ ১৩ জনকে আসামী করে একটি অপহরণ মামলা (মামলা নং- ১৫,১৭/১১/১৭)এস আই আনোয়ার বাদী হয়ে ১ টি অস্ত্র মামলা (মামলা নং১৬,তারিখ ১৭/১১/১৭)ও এ এস আই আকবর হোসেন বাদী হয়ে একটি ইয়াবা মামলা (মামলা নং- ১৭, তারিখ ১৭/১১/১৭) দায়ের করা হয়েছে।

সন্দ্বীপ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, আসামিদের হাতে নাতে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হবে।

ট্যাগ :