চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০

৩৯নং ওয়ার্ডের নিউমুরিং খালের উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও খালের ময়লা অপসারণ কার্যক্রম

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৫ ১১:৫৭:০৭ || আপডেট: ২০১৯-০৭-১৫ ১১:৫৭:০৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: নগীর বন্দর সংলগ্ন দক্ষিণ হালিশহর নিউ মুরিং তক্তারপুল এলাকায় খালের উপর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও খালের ময়লা-আবর্জনা অপসারণে চসিক ৩৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী জিয়াউল হক সুমনের নেতৃত্বে বিশেষ অভিযান পরিচালিত হয়।

রবিবার ১৪ জুলাই দুপুরে নিউ মুরিং তক্তারপুল এলাকা থেকে শুরু হওয়া অভিযানটি সন্ধ্যা পর্যন্ত ডক- শ্রমিক কলোনী গেইট এলাকায় গিয়ে সম্পন্ন করেন চসিক টিম।

এসময় অভিযান কাউন্সিলর পরিষদ সদস্য,গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ চসিক পরিচ্ছন্ন কর্তা,টেকনিক্যাল টিম ও খাল পূর্নাদ্ধার কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানের পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা ও চসিক সুপার ভাইজার সহদেব সাহা বলেন, আজকের অভিযানের মোট ৬০জন সেবক এবং কাউন্সিলরের আরো ১০/১৫জন স্বেচ্ছাসেবী নিরালস ভাবে সহাযতা করেন। এর ফলে বন্দর সংলগ্ন নিউ মুরিং তক্তারপুল(এলাকার) আধা কিলোমিটার খাল ও সংশ্লিষ্ট বন্দরের জমি উদ্ধার হয়েছে। যা পরবর্তীতে সুষ্ঠ খাল খননে সার্বিক সুবিধা হবে।

অভিযান প্রসঙ্গে কাউন্সিলর সুমন বলেন, এই অভিযানে কেউ বাধা দিলে থাকে আইনগত ভাবে প্রতিহত সহ কোন অবস্থাতেই সরকারী কাজে অন্যায় সহ্য করা হবে না। খাল সংস্কার ও অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জনগণ কে স্বাদছন্দ দিতেই আমার পরিষদ কাজ করে যাবে।
অন্যায় ভাবে কেউ খাল বা সরকারী জায়গা দখল করে অবৈধ স্থাপনা করলে তা শক্ত হাতে প্রতিরোধ করবোই। সকল জনগণ কে এই মহৎ উদ্যোগ কে সহায়তা করার বিশেষ অনরোধ জানান।

উক্ত অভিযানে কাউন্সিলর পরিষদ সদস্য মোঃ ইব্রাহিম, সাবেক সদস্য মোঃ মহসিন, আঃলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান, মোঃ শামীম, আনোয়ারুল করিম রুশদী, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মামুনুজ্জামান মামুন, মোঃ মনির হোসেন, যুবনেতা আলী হোসেন, জামাল হোসেন, রাসেল মাহামুদ, টিপু, হেলাল, শ্রমিক নেতা জাহিদ হোসেন, মামুন এবং ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আজ সোমবার দুপুরে ইপিজেড ফকির মোঃ সড়কস্থ চাঁন খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও খালের ময়লা অপসারন কার্যক্রম চলবে বলে জানিয়েছেন কাউন্সিলর জিয়াউল হক সুমন।

ট্যাগ :