চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২ মার্চ ২০২১

ধর্মগুরু স্বামী নিত্যানন্দের বিরুদ্ধে দুই কন্যাকে আটকে রাখার অভিযোগ বাবা-মায়ের, হাইকোর্টে মামলা

প্রকাশ: ২০১৯-১১-১৯ ১৫:৫৬:৫৫ || আপডেট: ২০১৯-১১-১৯ ১৫:৫৬:৫৫

ডেস্ক রিপোর্ট: স্বঘোষিত ধর্মগুরু স্বামী নিত্যানন্দের বিরুদ্ধে দুই কন্যাকে আটক করে রাখার অভিযোগ জানালেন এক দম্পতি। এ ঘটনায় সোমবার ১৮ নভেম্বর তারা একটি মামলা করেছেন গুজরাট হাইকোর্টে।

তাদের অভিযোগ, নিত্যানন্দের আশ্রমে আটকে রাখা হয়েছে তাদের মেয়েকে।

গত বছরের জুন মাসে কর্নাটক আদালতে নিত্যানন্দের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের হয়েছিল।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, জনার্দন শর্মা ও তার স্ত্রী সোমবার আদালতে জানান, ২০১৩ সালে তারা স্বামী নিত্যানন্দ পরিচালিত এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করেন তাদের চার মেয়েকে। তাদের বয়স ৭ থেকে ১৫ এর মধ্যে।

কিন্তু পরে তারা জানতে পারেন তাদের মেয়েদের ‘নিত্যানন্দ ধ্যানপীঠম’ নামের সেই প্রতিষ্ঠান থেকে অন্য প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। সেই প্রতিষ্ঠানের নাম ‘যোগিনী সর্বজ্ঞাপীঠম’।

আহমেদাবাদের দিল্লি পাবলিক স্কুলের কাছেই ওই প্রতিষ্ঠান। কিন্তু সেই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা তাদের সঙ্গে তাদের মেয়েদের দেখা করতে দেয়নি।

এরপর পুলিশের সাহায্য নিয়ে তারা তাদের দুই নাবালিকা কন্যাকে প্রতিষ্ঠান থেকে উদ্ধার করেন। কিন্তু দুই বড় মেয়ে লোপামুদ্রা (২১) ও নন্দিতা (১৮) এখনও সেখানেই আছে বলে পিটিশনে জানানো হয়েছে।

ওই দম্পতির অভিযোগ, তাদের দুই ছোট মেয়েকে বেআইনিভাবে আটকে রাখা হয়েছিল ২ সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে। তাদের ঘুমাতেও দেয়া হয়নি।

তারা আবেদন জানিয়েছেন, তাদের আটক দুই কন্যাকে উদ্ধার করার পাশাপাশি পুলিশ ওখানে আটক বাকি মেয়েদেরও উদ্ধার করুক।

ট্যাগ :