চট্টগ্রাম, , শনিবার, ৮ আগস্ট ২০২০

চট্টগ্রামে বিজিএমইএর করোনা ফিল্ড হাসপাতাল উদ্বোধন

প্রকাশ: ২০২০-০৭-০২ ২২:১৪:৩৬ || আপডেট: ২০২০-০৭-০২ ২২:১৪:৩৬

ডেইলি সিটিজি নিউজ : বৈশ্বিক মহামারী করোনায় আক্রান্ত পোশাকশিল্পের শ্রমিক-কর্মচারী ও স্থানীয় অসহায় জনগণের চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে নগরের সল্টগোলায় উদ্বোধন হয়েছে বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতাল, চট্টগ্রাম।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) বিজিএমইএ চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে ডিজিটালি হাসপাতালটি উদ্বোধন করা হয়।

অনুষ্ঠানে জুম অ্যাপসের মাধ্যমে প্রধান অতিথি তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। উদ্বোধক ছিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশী। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিজিএমইএর সভাপতি ড. রুবানা হক এবং চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদ।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মানুষ, মানুষের জন্য-এ কথা মনে রেখেই চট্টগ্রামে বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের জন্য ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, সরকারি-বেসরকারি ও বিজিএমইএর এ মহতী উদ্যোগের সফলতায় চট্টগ্রামে কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে। তিনি বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতালের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

ড. রুবানা হক সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতাল চালু করায় চট্টগ্রামের পোশাক শিল্প সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন জানান।

এ হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা সহায়তাসহ সুযোগ-সুবিধা উত্তরোত্তর বাড়ানোর আহ্বান জানান তিনি।

বিভাগীয় কমিশনার বলেন, শ্রমিকরা দেশের অর্থনীতির চালিকা শক্তি। চট্টগ্রামে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে হাসপাতালগুলোতে আক্রান্ত রোগীদের যদি নিরবচ্ছিন্ন অক্সিজেন সার্পোট দেওয়া হয় তাহলে ৯৫ শতাংশ রোগী সুস্থ হবে।

স্বাগত বক্তব্যে বিজিএমইএর প্রথম সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আবদুস সালাম বলেন, পোশাক শিল্প বাংলাদেশের অর্থনীতিতে নিয়ামক শক্তি হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বিজিএমইএ শ্রমিক কল্যাণ কর্মসূচির আওতায় হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্র স্থাপনের মাধ্যমে শ্রমিকদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবা প্রদান, শ্রমিকদের সন্তানদের জন্য অবৈতনিক স্কুল এবং শ্রমিকদের জন্য বাধ্যতামূলক বিমা সুবিধা প্রদান করে আসছে। বর্তমান কোভিড-১৯ সৃষ্ট মহামারীর কারণে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে শ্রমিক কর্মচারী ও স্থানীয় দরিদ্র জনগণের জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসাসেবা প্রদানের লক্ষ্যে বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপন করেছে।

এ ছাড়াও কোভিড-১৯ শনাক্তকরণে (টেস্ট) বিজিএমইএ একটি আরটি-পিসিআর মেশিন ‘বাংলাদশে ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিইউডি) অনুদান হিসেদে বেদে।

তিনি বলেন, বিজিএমইএর এ উদ্যোগের ফলে চট্টগ্রামে করোনা জনিত দুর্ভোগ কিছুটা হলেও লাঘব হবে।

বক্তব্য দেন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি এসএম ফজলুল হক ও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ফিল্ড হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ পরামর্শক ডা. আ ম ম মিনহাজুর রহমান।

বিজিএমইএর পরিচালক এনামুল আজিজ চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি এএম চৌধুরী (সেলিম), পরিচালক খন্দকার বেলায়েত হোসেন, অঞ্জন শেখর দাশ, এনামুল আজিজ চৌধুরী, মোহাম্মদ আতিক, বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি এসএম ফজলুল হক, সাবেক সহ-সভাপতি মোহাম্মদ ফেরদৌস, সাবেক পরিচালক এমডিএম মহিউদ্দীন চৌধুরী, আবদুল মান্নান রানা ও মোহাম্মদ সাইফ উল্ল্যাহ মনসুর।

জুম অ্যাপসের মাধ্যমে সংযুক্ত ছিলেন বিজিএমইএর সহ-সভাপতি মশিউল আলম সজল, সাবেক প্রথম সহ-সভাপতি খলিলুর রহমান, এসএম আবু তৈয়ব ও বিজিএমইএ হাসপাতাল বিষয়ক স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ও সাবেক পরিচালক সেলিম রহমান প্রমুখ।

 

সুত্র: বাংলানিউজ।

ট্যাগ :