চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১

২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু আরও ১৬, শনাক্ত ৪৪৩

প্রকাশ: ২০২১-০২-১৭ ১৭:২৪:২২ || আপডেট: ২০২১-০২-১৭ ১৭:২৪:২২

ডেস্ক রিপোর্ট: করোনাভাইরাসে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃত্যু হয়েছে ৮ হাজার ৩১৪ জনের। এছাড়া নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন ৪৪৩ জন। সব মিলিয়ে শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৪১ হাজার ৮৭৭ জনে।

বুধবার ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, সারাদেশে সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ২১৪ টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে আরটি-পিসিআর ল্যাব ১১৭, জিন-এক্সপার্ট ২৯, র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন ৬৮। এসব ল্যাবে ২৪ ঘণ্টায় নমুনা সংগ্রহ হয়েছে ১৬ হাজার ৪৩১। মোট নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১৬ হাজার ৬১২। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৩৮ লাখ ৯৩ হাজার ৬৫৪। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৩৩ জন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়েছেন চার লাখ ৮৯ হাজার ২৫৪ জন।

এতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার হার দুই দশমিক ৬৭ শতাংশ। এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৩ দশমিক ৯২ শতাংশ এবং শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৯০ দশমিক ২৯ এবং শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ৫৩ শতাংশ।

২৪ ঘণ্টায় মৃত ১৬ জনের মধ্যে ১২ পুরুষ, নারী চার জন। এদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ জন, রংপুর বিভাগে দুই জন। এছাড়া চট্টগ্রাম ও খুলনা বিভাগে এক জন করে দুই জন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মারা গেছেন ১৫ জন। বাড়িতে এক জন।

মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬০ বছরে ঊর্ধ্বে আট জন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে চার জন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে চার জন রয়েছেন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে এসেছেন ৫০ জন ও আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৭৬ জন। এ পর্যন্ত আইসোলেশনে এসেছেন এক লাখ ১৩ জন। আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র নিয়েছেন ৯০ হাজার ১০ জন। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ১০ হাজার তিন জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৭৬ জনের করোনার নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা পজিটিভ হয়েছে ৫ জনের। এছাড়াও হাসপাতালটি থেকে মহামারি এই ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন মোট ২ হাজার ৫৩৫ জন।

প্রসঙ্গত, কোভিড ও নন কোভিড রোগীদের সম্পূর্ণ পৃথক চিকিৎসার ব্যবস্থা রয়েছে আনোয়ার খান মডার্ণ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এমনকি দুটি বিভাগের চিকিৎসক, নার্সসহ কর্মরত প্রত্যেকের আলাদা থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। করোনা চিকিৎসা ছাড়া অন্য সকল চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম আগের মতই চলমান রয়েছে।

ট্যাগ :