চট্টগ্রাম, , রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১

মেয়রের আশ্বাসে চট্টগ্রামের গণপরিবহন ধর্মঘট স্থগিত

প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৫ ১৭:২৬:৩২ || আপডেট: ২০১৭-১২-০৫ ১৭:৪৬:১০

সিটিজি নিউজ ডেস্ক:
আপডেট: ২০১৭-১২-০৫ ৭:০৮:৪৯ পিএম
গণপরিবহন ধর্মঘটের কারণে নগরবাসীর দুর্ভোগ। ফাইল ছবি

 

 

চট্টগ্রাম: পুলিশি হয়রানি বন্ধ, অনুমোদন ও ফিটনেসবিহীন যানবাহন বন্ধের দাবিতে চট্টগ্রামের অনির্দিষ্টকালের গণপরিবহন ধর্মঘট স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহন মালিক সংগ্রাম পরিষদ।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নগর ভবনে মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ ঘোষণা দেন পরিষদের নেতারা।

মেয়রের ব্যক্তিগত সহকারী রায়হান ইউসুফ সিটিজি নিউজকে জানান, পরিষদের নেতাদের যৌক্তিক দাবি নিয়ে পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার আশ্বাস দিয়েছেন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ সময় মেয়র নগরবাসীর দুর্ভোগ, শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা ইত্যাদি বিবেচনায় নিয়ে ধর্মঘট স্থগিতের অনুরোধ জানান।

বৈঠক শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহন মালিক সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক বেলায়েত হোসেন বেলাল স্থগিতের ঘোষণা দেন। বৈঠক চলাকালীন বিপুলসংখ্যক পরিবহন মালিক-শ্রমিক নগর ভবনের নিচে অবস্থান নেন।

বৈঠকে বিআরটিএর ডিডি শহীদুল্লাহ, চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহন মালিক সংগ্রাম পরিষদের উপদেষ্টা আমজাদ হোসেন, সদস্যসচিব এসএম তৈয়ব, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশনের সভাপতি মো. মুছা, সাধারণ সম্পাদক মো. অলি আহমদ, চট্টলা পরিবহনের সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন শরিফ মিজান, সিটি বাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এমএ হাকিম, সিটি সার্ভিস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অরুণ দাশগুপ্ত ভানু, যাত্রীসেবা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন, জেলা হিউম্যান হলার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক খুরশিদ আলম, সিটি সার্ভিসের সভাপতি আবদুল বারেক, সিটি বাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, চট্টলা পরিবহনের সিনিয়র সহ-সভাপতি রায়হানুল হক প্রমুখ।

মেয়র বলেন, মালিক শ্রমিকদের সহযোগিতায় গণপরিবহনে সুশৃঙ্খল পরিবেশ সুরক্ষা করতে হবে। সব দাবি আলোচনার ভিত্তিতে সমাধান করা হবে। জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না করে জনগণের চাহিদা পূরণে পরিবহন মালিকদের সচেষ্ট হতে হবে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ব্যবস্থাপনায় ড্রাইভার প্রশিক্ষণ কোর্স চালু করা হবে এবং যাত্রীসাধারণের সুবিধার্থে ৬৬টি স্পটে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন আধুনিক সুবিধা সম্বলিত যাত্রী ছাউনি নির্মাণ করবে, অবৈধ গাড়ি চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং রেজিস্ট্রেশন ছাড়া কোনো সংগঠন বৈধতা পাবে না।

রোববার (৩ ডিসেম্বর) সকাল ৬টা থেকে অনির্দিষ্টকালের গণপরিবহন ধর্মঘট শুরু করে চট্টগ্রাম মেট্রো গণপরিবহন মালিক সংগ্রাম পরিষদ। এর ফলে নগরবাসী সীমাহীন দুর্ভোগে পড়েন। নারী, শিশু, বৃদ্ধা, চাকরিজীবীসহ যাত্রীরা যানবাহনের অপেক্ষায় ঘণ্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকেন। কেউ কেউ বেশি ভাড়ায় রিকশা, সিএনজি অটোরিকশায় গন্তব্যে পৌঁছালেও বেশিরভাগ মানুষকেই হেঁটে গন্তব্যে পৌঁছতে হয়।

 

ট্যাগ :