বাংলাদেশের মহান বিজয় দিবস আজ। ৯ মাসের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে লাখো শহীদের রক্তে রাঙিয়ে রাতের অন্ধকার ভেদ করে বাংলার দামাল ছেলেরা কেড়ে এনেছিল ফুটন্ত সকাল। বাঙালি জাতির হাজার বছরের শৌর্যবীর্য ও বীরত্বের এক অবিস্মরণীয় দিন এটি। বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামে একটি স্বাধীন ভূখণ্ডের নাম জানান দেওয়ার দিন। জাতির আনন্দদিন এই জাতীয় দিবস। ৪৬ বছরেও সেই আনন্দের এতটুকু কমতি নেই। কারণ দিনটি হলো বাংলাদেশের এগিয়ে চলার অনন্ত উত্স। ১৯৭২ সালের ২২ জানুয়ারি এক প্রজ্ঞাপনে ১৬ ডিসেম্বরকে জাতীয় বিজয় দিবস ঘোষণা করা হয়েছিল।

মহান বিজয় দিবসে চট্টগ্রাম কেন্দ্রিয় শহীদ মিনারে চট্রগ্রাম রিপোর্টাস ইউনিটির পক্ষ থেকে ফুলেল শ্রদ্ধা জানান নেতৃবৃন্দ।

শ্রদ্ধা নিবেদনে উপস্থিত ছিলেন চট্রগ্রাম রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি কিরণ শর্মা, সাধারণ সম্পাদক কাজী হুমায়ুন কবির, সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম, যুগ্ন-সম্পাদক আমিনুল হক শাহিন, সহ-সম্পাদক আজগর আলী মানিক, অর্থ সম্পাদক নুরুল কবির, সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদুল আজীজ, দপ্তর সম্পাদক আব্দুল করিম সেলিম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক রাজীব রাহুল, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক অরুন নাথ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বাবুল মিয়া বাবলা, সম্মানিত সদস্য আবছার রশিদ আইয়্যুব, ইব্রাহীম সেলিম, রাজু আহম্মেদ, কাজী মাহদী হাসানসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।