চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২১

দূর্ঘটনায় পতিত গ্রাম কেন শহরে

প্রকাশ: ২০১৯-০৫-৩০ ১১:২০:১৭ || আপডেট: ২০১৯-০৫-৩০ ১১:২০:১৭

এ.এস.রানা: প্রতিদিন নগরের বিভিন্ন স্থানে চলছে নিয়মিত বিআরটিএ’র তিনটি আদালতে বিভক্ত হয়ে ভ্রাম্যমাণ কোর্ট। সেই সাথে প্রতিটি মোড়ে রয়েছে পুলিশ প্রশাসন । প্রতিদিন হচ্ছে শত শত মামলা ও জরিমানা। সড়কে নিয়মনীতি ফিরিয়ে আনতে বিআরটিএ ও ট্রাফিক বিভাগ দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। সরকারি দুটি দপ্তর সার্বক্ষনিক নজরদারিতে রেখেছেন নগরীকে। কিন্তু তারপরও ফাঁকে ফাঁকে চলছে অনিয়ম। কিছুতেই মালিক পক্ষ কথা দিয়ে কথা রাখছেনা।গভীর রাতে তারা নামাচ্ছে অবৈধ গাড়ি। প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দেয়ার পাঁয়তারা। তেমনি সেই দিন ঘটে যাওয়া ঘটনাতেও অনিয়ম পাওয়া যায়, যা দৃষ্টি গোচর হয়েছে সকলের।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত ২৮মে গভীর রাতে আকবর শাহ থানাধীন অলংকার মোড় সংলগ্ন একটি ট্রাক একটি সিএনজিকে চাপা দেয়। ঘটনাটি খুব দুঃখজনক হলেও এখানে একটি অনিয়ম ধরা পড়ে।যে সিএনজিটি চাপা পড়ে সেটির নাম্বার নেয়া হয়েছে “গ্রাম”। তবে গ্রাম সিএনজি গভীর রাতে শহরে কিভাবে এলো। এই প্রশ্ন প্রত্যক্ষদর্শী সবার। তাহলে কি অনিয়মকারী মালিক পক্ষ কি প্রশাসনকে ধুলো দিচ্ছে।

এই ব্যাপারে বিআরটিএ’র কর্মকর্তাগন বলেন, বিষয়টি মিডিয়াতে দেখে তাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। দুঃখের বিষয় এই রকম আরো কিছু গাড়ি নগরের বিভিন্ন পয়েন্ট চলছে, আমাদের কাছে তথ্য এসেছে। অচিরেই তা প্রতিহত ও বন্ধ করা হবে। এ সময় কিছু পয়েন্ট নতুন ব্রিজ, অক্সিজেন মোড়, অলংকার মোড় এলাকায় টহল বৃদ্ধির চিন্তা করা হচ্ছে বলে তারা জানান। যেসব গাড়ি প্রাইভেট লিখে ভাড়ায় চালায় তাদেরকেও ছাড় দেয়া হবেনা বলে জানানো হয়েছে।

ট্যাগ :