চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

হয়রানির প্রতিবাদ করায় ঠাকুরগাঁওয়ে নার্সকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশ: ২০১৯-০৬-২৭ ১৭:০৯:৪১ || আপডেট: ২০১৯-০৬-২৭ ১৭:০৯:৪১

ডেস্ক রিপোর্ট: ঠাকুরগাঁওয়ে হয়রানির প্রতিবাদ করায় বখাটে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে ভানজিনা আক্তার (২০) নামের এক নার্সের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

নিহত তানজিনা সদর উপজেলার সালন্দর ইউনিয়নের মাদ্রাসাপাড়া গ্রামের হামিদ আলীর মেয়ে। তিনি ঠাকুরগাঁও গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালের সেবিকা (নার্স) ছিলেন।

তানজিনার চাচাতো ভাই হুমায়ুন কবির জানান, গত ২০ জুন সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থল সালন্দর বেসরকারি সংস্থা গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। এ সময় পেছন থেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে পিঠে, বুকে, হাতে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে তার সর্ম্পকিত ভাইয়ের ছেলে মোহাম্মদ জীবন।

তিনি জানান, ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে পর দিন ২১ জুন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য স্থানান্তর করা হয়।

নিহত তানজিনার বাবা হামিদ আলী অভিযোগ করেন, মো. জীবন প্রতিদিন এলাকার বিভিন্ন মেয়েদের উক্ত্যক্ত করত। ভুক্তভোগী স্কুল পড়ুয়া মেয়েরা তানজিনাকে এ অভিযোগ দেয়। এ নিয়ে ওই বখাটেকে শাসন করায় সে আমার মেয়েকে ছুরিকাঘাত করে।

এ ঘটনায় এখনো থানায় মামলা হয়নি জানিয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ওসি আশিকুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগ :