চট্টগ্রাম, , শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

মিন্নির দুই আবেদন নামঞ্জুর করলো আদালত

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২২ ১৫:৩৭:৫৭ || আপডেট: ২০১৯-০৭-২২ ১৫:৩৭:৫৭

ডেস্ক রিপোর্ট: বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যা মামলার প্রধান সাক্ষী ও নিহতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে নিয়ে করা দুটি আবেদন নামঞ্জুর করেছে আদালত। সোমবার ২২ জুলাই দুপুরের এ আবেদন দুটি নামঞ্জুর করেন বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী।

মিন্নির আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম বলেন, ‘রিফাত হত্যা মামলায় আমরা মিন্নির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রত্যাহার চেয়ে আদালতে আবেদন করতে চাই। সেই আবেদন করতে হলে মিন্নির একটি স্বাক্ষর প্রয়োজন। এজন্য আমি মিন্নিকে আদালতে তলব করার আবেদন জানাই। কিন্তু এই স্বাক্ষর জেলহাজতে থাকা অবস্থায় জেলারের মাধ্যমে নেওয়া সম্ভব জানিয়ে আবেদনটি নামঞ্জুর করেন আদালত।একই সঙ্গে জেল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে মিন্নি স্বীকোরোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে পারবে।’

মিন্নির চিকিৎসার আবেদনের বিষয়টি নিয়ে আইনজীবী আসলাম আরও বলেন, ‘মিন্নি অসুস্থ। তার চিকিৎসা প্রয়োজন। মিন্নির সুচিকিৎসার আবেদন জানিয়ে আদালতে আরেকটি আবেদন করেছিলাম। কিন্তু মিন্নির যেকোনো ধরনের চিকিৎসা কারা কর্তৃপক্ষ দিতে বাধ্য জানিয়ে এ আবেদনটিও নামঞ্জুর করেছে আদালত। ’

রবিবার ২১ জুলাই মিন্নির জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে আদালত। এর আগে রিফাত হত্যার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় গত ১৭ জুলাই ৫ দিনের রিমাণ্ড মঞ্জুর করে আদালত।

রিমাণ্ডের মধ্য দিয়েই আদালতে মিন্নির জবানবন্দী নেওয়া হয়। এর পর মিন্নির বাবা দাবি করেন, তার মেয়ে অসুস্থ। তাকে নির্যাতন করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী নেওয়া হচ্ছে।

গত ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। বেলা তিনটার দিকে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রিফাতের মৃত্যু হয়।

পরের দিন ওই ঘটনায় রিফাতের বাবা আবদুল হালিম শরীফ বাদী হয়ে বরগুনা থানায় ১২ জনের নামে এবং চার-পাঁচজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

ট্যাগ :