চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

ছেলেধরা গুজবে কারো গায়ে হাত দিলে কঠোর ব্যাবস্থা নেয়া হবে : সিএমপি

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২৪ ১৫:৩১:২২ || আপডেট: ২০১৯-০৭-২৪ ১৫:৩১:২২

এ.এস.রানা: ছেলেধরা গুজবে কাউকে গণপিটুনি না দেয়ার জন্য সিএমপি পতেঙ্গা থানা পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে মাইকিং করা ও জনসাধারণকে বুঝিয়ে দেয়া হয়।

বুধবার (২৪ জুলাই) সকাল ১০ টা থেকে পতেঙ্গা বাজারসহ পুরা এলাকা ও বসত এলাকা জুড়ে সিএনজি যোগে এই মাইকিং করা শুরু হয়।

ছেলেধরা গুজবে কান না দিয়ে, ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনী না দিয়ে পুলিশের সহযোগিতা ও পুলিশে সোপর্দ করার আহবান নিয়েও মাইকিং করতে দেখা যায় পতেঙ্গা থানার অফিসার সাব-ইন্সপেক্টর জসিম কে।

জানতে চাইলে পতেঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উৎপল বড়ুয়া চট্টবাণীকে বলেন, ছেলে ধরা গুজবে কান না দিতে, গুজব ছড়ানোকে কেন্দ্র করে শান্তিপূর্ণ দেশের বিভিন্ন স্থানে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে। যা খুবই কষ্টদায়ক ঘটনা। সাধারণ দিনমজুররা কাজ করতে ভয়ে বের হতে পারছেনা,যারা ফেরি করে গ্রাম-গঞ্জে, অলিগলিতে ভ্যান করে আচার, সবজি বিক্রি করেন তাদের পেটানো হচ্ছে। তারা ভয়ে বাসা থেকে বের হতে না পারায় তাদের পরিবারকে না খেয়ে খুব খারাপ অবস্থায় দিন কাটাতে হচ্ছে। তাই আজকের এই আয়োজন।

তিনি আরো বলেন, ছেলেধরা সন্দেহ হলে কাউকে গণপিটুনি না দিয়ে আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশে সোর্পদ করুন। পুলিশ আছে সবার পাশে। জরুরি অবস্থায় থানায় ফোন দিন।

এই ব্যাপারে অফিসারদের মধ্যে স্বশরীরে ঘোষনাকারী সাব-ইন্সপেক্টর জসিমের সাথে কথা বললে তিনি জানান, সচেতনতামূলক মাইকিংয়ে ব্যাপক সাড়া দেখা যাচ্ছে। সবার মনে যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস। তাতেই বুঝা যায় আতঙ্কটি সবার মাঝে বিরাজ করছিল কিন্তু গুজব রটানাকারীদের ভয়ে কেউ কিছু বলতোনা। প্রাথমিক ভাবে তাদের বলা হয়েছে স্বাভাবিকভাবে যেন তারা প্রতিদিনের কাজে নির্ভয়ে কাজ করেন। তাদের ইমারজেন্সি নাম্বার দেয়া হয়েছে যেন অপ্রীতিকর কিছু দেখলেই ফোন করে পুলিশের সহায়তা নেয়।

ট্যাগ :