চট্টগ্রাম, , শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

বিশিষ্ট কবিয়াল বাবুল কান্তি দাশের মৃত্যুতে শোক ও স্মৃতিচারণ সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশ: ২০১৯-০৭-৩১ ১৭:০৫:৫১ || আপডেট: ২০১৯-০৭-৩১ ১৭:০৫:৫১

নিজস্ব প্রতিবেদক: লোককলা চর্চা কেন্দ্র বাংলাদেশ এর আয়োজনে কেন্দ্রের অন্যতম সংগঠক বিশিষ্ট কবিয়াল বাবুল কান্তি দাশের মৃত্যুতে শোক ও স্মৃতিচারণ সভা মঙ্গলবার ৩০ জুলাই বিকাল ৫টায় সংগঠনের দোস্ত বিল্ডিস্থ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়। প্রয়াতের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অপর্ন ও একমিনিট নিরবতা পালনের মধ্য দিয়ে আত্মার সদগতি কামনার করে সভার সুচনা করা হয়।

চর্চা কেন্দ্রের প্রধান উপদেষ্টা, চবি গবেষক ভাষ্কর ডি.কে.দাশ (মামুন) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি ও প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর অধ্যাপক প্রণব মিত্র চৌধুরী ও বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক সংগঠক প্রণব রাজ বড়ুয়া।

বিশেষ অতিথিদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ শেখ এ রাজ্জাক রাজু, শিল্পী ও সংগঠক এম.এ হাশেম, কবিয়াল আব্দুল লতিফ, কবিয়াল সন্তোষ কুমার দে, নাট্যকর্মী কে.কে বাবুল, শিল্পী হানিফুল ইসলাম হানিফ, রাজনীতিবিদ হাবিবুর রহমান হাবিব, সংগঠক মোশারফ হোসেন খান রুনু, প্রধান শিক্ষক তরনী কুমার সেন, শিক্ষিকা তাহেরা খাতুন, শিল্পী তপন কুমার দাশ, শিল্পী সাবিকুন নাহার শিউলী, সংগঠক নিবেদিতা আচার্য্য, নাট্যকর্মী মোহাম্মদ রাশেদ, আজগর আলী প্রমুখ।

স্মৃতিচারন মূলক আলোচনায় বক্তারা বলেন, কবিয়াল বাবুল কান্তি দাশ ছিলেন একজন নিবেদিত প্রাণ লোকশিল্পী। লোকগানের আসরে তিনি আবহমান বাংলার রূপ বৈচিত্র, বাঙ্গালীর জীবন যাত্রা, সুখ-দু:খ, হাসি-কান্ন, বিরহ-বেদনা কাব্যের দ্যোতনা দিয়ে ফুটিয়ে তুলেছেন। সদালাপী, আড্ডারু মানুষ ছিলেন কবিয়াল বাবুল কান্তি দাশ। নগর-শহর-বন্দরে, বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশনে দীর্ঘদিন কবিগান পরিবেশন করে তিনি খ্যাতি অর্জন করেছেন। জীবনের শেষ সময়গুলোতে তার দারিদ্রের সাথে সহবাসের চরম ক্রান্তিকালে কখনো সরকারী কিংবা বেসরকারি সহায়তার জন্য তিনি কখনো মুখাপেক্ষি হননি। তিনি ছিলেন স্বল্পে তুষ্ট একজন বিশাল অন্তরের অধিকারী মানুষ।

বক্তরা আরো বলেন, তার অসহায় বিধবা স্ত্রী কিংবা সন্তানদের মানুষের মতো বাঁচার জন্যে সরকার ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসা উচিত।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে প্রয়াত কবিয়াল বাবুল কান্তি দাশের স্মৃতির উদ্দেশ্যে সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশ নেন কবিয়াল আব্দুল লতিফ, শিল্পী এম.এ. হাশেম, শিল্পী তপন কুমার দাশ, শিল্পী বৃষ্টি দাশ, শিল্পী হানিফুল ইসলাম হানিফ, শিল্পী জাহানারা পারুল, কবিয়াল সন্তোষ কুমার দে, কবিয়াল হরিপদ দেয়ারী, শিল্পী উজ্জ্বল সিংহ, শিল্পী জ্যোতি শর্মা, শিল্পী মৈত্রী আচার্য্য প্রমুখ।

ট্যাগ :