চট্টগ্রাম, , সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঈদের আগে সাংবাদিকদের বেতন-বোনাস এবং বকেয়া পরিশোধের দাবি জানিয়েছে সিইউজে

প্রকাশ: ২০১৯-০৮-০৭ ১৬:৫৩:০৭ || আপডেট: ২০১৯-০৮-০৭ ১৬:৫৩:০৭

সিটিজি নিউজ: ঈদ উল আযাহার আগে চট্টগ্রামে কর্মরত সকল সাংবাদিক-কর্মচারীদের বেতন, বোনাস এবং বকেয়া পরিশোধের দাবি জানিয়েছে চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন-সিইউজে। সিইউজের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাঈনুদ্দিন দুলাল, সাধারণ সম্পাদক হাসান ফেরদৌস এক বিবৃতিতে এই দাবি জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, তথ্যমন্ত্রণালয়ের অধীন চলচ্চিত্র প্রকাশনা অধিদফতর-ডিএফপি মহাপরিচালক জনাব মোহাম্মদ ইসতাক হোসেন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি বলা হয়, গত ১৮ জুলাই ২০১৯ অনুষ্ঠিত ৮ম সংবাদপত্র মজুরী বোর্ডের মনিটরিং সভায় সংবাদপত্র, সংবাদসংস্থায় কর্মরত সাংবাদিক-কর্মচারীদের বেতন, বোনাস এবং সকল বকেয়া পরিশোধের জন্য সংবাদপত্র মালিকদের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বিভিন্ন সংবাদপত্র, সংবাদসংস্থায় কর্মরত সাংবাদিক-কর্মচারীদের নিয়মিত বেতন ভাতা পরিশোধ করা হচ্ছে না এমন অভিযোগ এনে ডিএফপির মহাপরিচালক গত ৩১ জুলাই এই নির্দেশনা জারী করে। নির্দেশনায় ঈদের আগে সাংবাদিক কর্মচারীদের বেতন, বোনাস এবং বকেয়া পরিশোধ করা না হলে সংশ্লিষ্ট সংবাদপত্রে ৮ম সংবাদপত্র মজুরী বোর্ডের আওতায় প্রদত্ত সুযোগ সুবিধা প্রত্যাহার করা হবে বলেও সর্তক করে দেয়া হয়।

বিবৃতিতে ডিএফপি’র এই নির্দেশনাকে স্বাগত জানিয়ে সিইউজে নেতৃবৃন্দ ডিএফপি’র নির্দেশনা অনুযায়ী ঈদ উল আযাহার আগে চট্টগ্রাম থেকে প্রকাশিত সকল সংবাদপত্র মালিকদের প্রতি আহবান জানান। ডিএফপি’র তথ্য অনুযায়ী বর্তমানে চট্টগ্রাম থেকে ২৮টি পত্রিকা প্রকাশিত হয়। ডিএফপি থেকে নিবন্ধন নেয়া পত্রিকা গুলির মধ্যে রয়েছে, দৈনিক আজাদী, দৈনিক পূর্বকোণ, দৈনিক কর্ণফুলী, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ, দৈনিক বীর চট্টগ্রাম মঞ্চ, দৈনিক আমাদের চট্টগ্রাম, পিপলস ভিউ,দৈনিক আজকের চট্টগ্রাম, কর্মাশিয়াল টাইমস, দ্যা ডেইলি লাইফ, দৈনিক সত্যবাণী, দৈনিক নয়াবাংলা, দৈনিক দেশের কথা, দৈনিক গিরি দর্পণ, দৈনিক বিশ্বকন্ঠ,দৈনিক বীরকন্ঠ, ইষ্টার্ণ এক্সপ্রেস, দৈনিক শাহ আমানত,দৈনিক পূর্বপ্রান্ত, দৈনিক পূর্বতারা,দৈনিক সমধারা, দৈনিক চট্টগ্রামের পাতা,দৈনিক প্রিয় বাংলাদেশ, দৈনিক বায়োজিদ, দৈনিক পূর্বকাল,দৈনিক আশাদী এবং দৈনিক দেশজনতার বাণী।

এর মধ্যে দৈনিক আজাদী, দৈনিক পূর্বকোণ, দৈনিক পূর্বদেশ, দৈনিক কর্ণফুলী, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশ ৮ম সংবাদপত্র মজুরী বোর্ড রোয়েদাদ পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়ন করেছে বলে ডিএফপি’র কাছে তথ্য জমা দিয়ে সরকারী সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করছে।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, যেসব সংবাদপত্র ডিএফপি থেকে নিবন্ধন নিয়ে পত্রিকা প্রকাশ করছে, অথচ ৮ম সংবাদপত্র মজুরী বোর্ড রোয়েদাদ বাস্তবায়ন করেনি তাদের বিষয়েও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়ন-সিইউজে ব্যবস্থা নেবে। এছাড়া ওইসব সংবাদপত্র প্রকাশের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ শ্রম আইন ২০০৬ (সংশোধিত ২০১৩) এবং ডিএফপি’র নির্দেশনা মানছে কিনা তা মনিটরিং করার উদ্যোগ নিয়েছে। বিজ্ঞপ্তি।

ট্যাগ :