চট্টগ্রাম, , শনিবার, ১৫ মে ২০২১

পাখির মেলায় দর্শনার্থীদের ভিড়

প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৯ ১৫:০০:১৮ || আপডেট: ২০১৭-১২-০৯ ১৫:০০:১৮

সিটিজি নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশ: ২০১৭-১২-০৯ ১৭:১১:২৬

 

সিভাসু ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী ৩০০টিরও অধিক পোষা দেশি বিদেশী পাখি প্রদর্শন করা হয়।

 

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) পোষা প্রাণীমেলা ও প্রদর্শনী শুরু হয়েছে। শনিবার (০৯ ডিসেম্বর) সকালে দিনব্যাপী এ মেলার উদ্বোধন করেন গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন। চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়, অ্যাসোসিয়েশন অব এভিয়ান ভেটেরিনারিয়ান, চিটাগাং বার্ড ব্রিডার্স অ্যাসোসিয়েশন ও চট্টগ্রাম ফেন্সী পিজিয়ন ব্রিডার্স অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত মেলায় বিভিন্ন প্রজাতির ৩০০টি পোষা পাখি, ২৫০টি সৌখিন কবুতর, ২০টি রেসার কবুতর এবং ৩০টি হাই ফ্লাইয়ার কবুতরসহ মাছ ও পোল্ট্রি প্রদর্শিত হয়।বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও পাখিপ্রেমীরা সকাল থেকেই পোষা পাখিমেলায় ভিড় জমায়। বিশেষ করে ছোট শিশুদের উপস্থিতি চোখেপড়ার মতো। সভাসু ক্যাম্পাসে দিনব্যাপী ৩০০টিরও অধিক পোষা দেশি বিদেশী পাখি প্রদর্শন করা হয়। মেলায় গ্রে-প্যারট, র‌্যাম্প, ক্রিমসন, ফিঞ্চ, কাকাতোয়া, ম্যাকাও, ভেলিট কুনোর, রুবিনো, রোজিলা, মিলি রোজেলাসহ ৩০০ প্রজাতির পোষা পাখি এবং হাউজ পিজিওন, জেকোবিন, বোখারা, পোমারিয়ান পোটার, ফিন্ডব্যাক, আমেরিকান ফেনটেইল, সর্ট ফেইস, লং ফেইস, হোয়াইট টপ বোখারাসহ ২৫০ প্রজাতির পোষা কবুতর প্রদর্শনীতে স্থান পায়।উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘পরিবেশ বান্ধব হলে দেশে পাখির অভয়ারণ্য করা যাবে। ঢাকার অনেক স্থানে বিদেশি পাখির আনাগোনা আছে। মিরসরাইয়ের জলাশয়েও নানা বিদেশি পাখি চোখে পড়ে। এসব পাখিদের সংরক্ষণ করতে জানতে হবে। পোষা প্রাণী পালন করে অনেকে বাণিজ্যিকভাবেও লাভবান হচ্ছে।মন্ত্রী অনন্যা আবাসিক এলাকায় প্রাণী হাসপাতাল নির্মাণের জন্য সিভাসুর উপাচার্যকে আবেদন করতে বলেন এবং তিনি জায়গা ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। সিভাসুর উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রফেসর ড. একেএম. সাইফুদ্দীন, প্রফেসর ডা. মো. রায়হান ফারুক, প্রফেসর ড. ভজন চন্দ্র দাস প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

ট্যাগ :